1. rashrafulofficial@gmail.com : Asraful Islam : Asraful Islam
  2. vorernews.info@gmail.com : admi2017 :
  3. allensumon19@gmail.com : allen sumon : allen sumon
  4. mehrazkhanopy159@gmail.com : Admin4 :
  5. rkrony647@gmail.com : Mohammad Rony : Mohammad Rony
ফেসবুকে বাবা মার কাছে ক্ষমা চেয়ে যুবকের আত্মহত্যা - VorerNews.com
ব্রেকিং নিউজঃ
জলবায়ু তথ্য: অর্থ সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য নতুন কী প্রিন্স হ্যারি যেসব শিশুদের বাবা-মা হারিয়েছেন তাদের কভিড -১৯-তে বলেছেন: ‘আপনি একা নন’ বাংলাদেশ পাকিস্তান, ভারত ও শ্রীলঙ্কার চেয়ে সুখী আ.লীগ ক্ষমতায় এলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ক্ষতিগ্রস্থ: ফখরুল ফেসবুকে বাবা মার কাছে ক্ষমা চেয়ে যুবকের আত্মহত্যা মাত্র ২০ বছর বয়সেই সফল ডিজিটাল মার্কেটার মেহরাজ খান অপি অর্থবছর 21-এ 8 শতাংশ সংকোচনের পরে অর্থনীতি 11 শতাংশে প্রত্যাবর্তন করবে: ক্রিসিল রেটিং জটিল এবং কঠিন পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকুন: রাষ্ট্রপতি শি চীন পিএলএকে বলেছেন পাকিস্তানের আক্রমণে চীনা নাগরিক সামান্য আহত হয়েছে আইপিএল টি ২০ বিশ্বকাপ ২০২২ প্রস্তুতিতে সহায়তা করবে: ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক স্যাম বিলিংস বিল

ফেসবুকে বাবা মার কাছে ক্ষমা চেয়ে যুবকের আত্মহত্যা

  • Update Time : Monday, March 15, 2021
  • 70 Time View

 

 

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার পর নদীতে লাফ দিয়ে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা সাভারের রেডিও কলেনি এলাকার বাসিন্দা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এন্ড কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী বিকাশ ইসলাম (২১) তার ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নদীতে লাফ দিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বংশী নদীতে তল্লাশী চালিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস। এরআগে রোববার রাত ৮টার দিকে সাভারের নামাবাজার বংশী নদীতে লাফ দিয়ে নিখোঁজ হয়েছিল এই কলেজ ছাত্র। পুলিশ জানায়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বিবিদ্যালয় স্কুল এন্ড কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী বিকাশ ইসলাম রোববার রাত ৮টার দিকে নিজের ফেসবুকে বাবা-মার কাছে ক্ষমা চেয়ে আত্মহত্যার কথা উল্লেখ করে বংশী নদীর উপরে ব্রীজ থেকে পড়ে নিখোঁজ হয়। খবর পেয়ে পরেরদিন সকালে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল বংশ নদীতে তল্লাশী করে তার লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর একজোড়া স্যান্ডেল বংশী নদী থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। ওই শিক্ষার্থী ফেসবুকে লিখেছিলেন, “কৃতজ্ঞতা জানাই আমার পরিবার আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও আমার প্রিয় মানুষটাকে। আমার কারো প্রতি কোনো ক্ষোভ রাগ অভিমান নাই। যা করেছি বাস্তবতার সাথে তাল না মেলাতে পারার জন্যই করেছি। আমি হেরে গেছি আমি ব্যর্থ। অনেক ইচ্ছা ছিল নিজে কিছু করে বাবা-মার সেবা-যত্ন করার। কিন্তু বাস্তবতা আসলেই কঠিন যা অনেকে মেনে নিতে পারে, আবার অনেকে পারেনা। আমি না পারার দলেই পড়লাম। মা পারলে মাফ করে দিও।”

ওই শিক্ষার্থী সাভারের রেডিওকলোনী এলাকায় মোকছেদ মিয়ার বাড়িতে বাবা মার সাথে ভাড়া থাকতো। নিহত বিকাশ কুষ্টিয়া জেলার আমান উল্লার ছেলে। সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এফএম সায়েদ বলেন, কি কারণে ওই শিক্ষার্থী ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নদীতে পড়ে আত্মহত্যা করেছে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category