• E-paper
  • English Version
  • সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন

অভয়নগরে পানির ট্যাঙ্ক থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১১০ বার পঠিত

যশোরের অভয়নগরে রিজার্ভ পানির ট্যাঙ্ক থেকে হাবিবুর রহমান খাঁ (৪২) নামে এক রং মিস্ত্রীর গলাকাটা অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার দুপুরে নওয়াপাড়ার বোয়ালমারী পোলের পাশে আলমগীর সরকারের আবাসিক ভবনের মধ্যে অবস্থিত রিজার্ভ পানির ট্যাঙ্ক থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত হাবিবুর রহমানের বাড়ি বরিশাল জেলার সদর উপজেলার নড়াসিটি গ্রামে। পরিবারে তার স্ত্রী ও দুইটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, পানিতে দুর্গন্ধ ছাড়ালে সন্দেহ বশত পুলিশে খবর দেওয়া হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ শনিবার দুপুরে স্থানীয় বোয়ালমারী পোলের পাশে অবস্থিত ওই ভবন থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

ভবনের মালিক আলমগীর সরকার জানান, পানি থেকে দুর্গন্ধ ছড়াতে দেখে তার কর্মচারীরা তল্লাশি করে নিশ্চিত হয় যে, তার ৭ তলা ভবনের নীচ তলায় অবস্থিত পানি সঞ্চয় করে রাখা (রিজার্ভ) ট্যাঙ্ক থেকে গন্ধ ছড়াচ্ছে। এ সময়ে তাদের সন্দেহ হয়। পরে তারা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ট্যাঙ্ক থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

থানা অফিসার ইনচার্জ মো: তাজুল ইসলাম জানান, হাবিবুরকে ৪/৫ দিন আগে হত্যা করে লাশ পানির ট্যাঙ্কে লুকিয়ে রাখা হয়েছিলো। লাশের গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তা ছাড়া লাশের হাত ও পা বাঁধা ছিলো। আমরা ভবনের দুই তলার একটি কক্ষে হত্যার আলামত পেয়েছি। লাশের পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।

তিনি আরো জানান, ৪/৫ দিন যাবৎ হাবিবুর নিখোঁজ ছিলো। তার মোবাইল ফোন সেট বন্ধ থাকায় পরিবারের লোক জন খোঁজা খুজি করছিলো।

নিহতের বড় ভাই ইউছুপ আলী খাঁ জানান, তার ভাই নওয়াপাড়া এলাকায় দুই বছর যাবত রং মিস্ত্রীর সরদারের কাজ করছে। মামুন নামে তার ভাইয়ের এক সহকর্মী বুধবার(১৬-১০-১৯) হাবিবুর রহমানের স্ত্রীর নাম্বারে ফোন করে। ফোনে মামুন জানায়, তার স্বামীর একটা ঝামেলা হয়েছে। তাকে একটি চক্র বন্দি করে রেখেছে, উদ্ধার করতে ১০ হাজার টাকা লাগবে। তার কাছে ৭ হাজার টাকা আছে আপনি তাড়াতাড়ি ৩ হাজার টাকা পাঠিয়ে দিন। ফোন পেয়ে হাবিবুরের স্ত্রী নাসরিন বেগম স্বামীর জন্য বিকাশ এর মাধ্যমে ৩ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন। সেই থেকে মামুন ও হাবিবুর নিখোঁজ রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..