• E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

বৈরী আবহাওয়ায় লঞ্চ চলাচল বন্ধ, ফেরি পারাপার ব্যাহত

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ জুলাই, ২০১৮
  • ১৮৮ বার পঠিত

বৈরী আবহাওয়ায় নদী উত্তাল থাকায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে আজ শনিবার বেলা ১১টা থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। দ্রুত নদী পাড়ি দিতে না পারায় উভয় ঘাটে আটকা পড়ছে গাড়ি। দুর্ভোগের কবলে পড়ছে শত শত মানুষ। রাত যত বাড়ছে, দুই ঘাটে বাড়ছে যানবাহনের সারি। লঞ্চযাত্রীরা ফেরিতে নদী পাড়ি দিচ্ছে। এ ছাড়া নদী উত্তাল থাকায় ফেরি চললেও আগের তুলনায় ট্রিপ সংখ্যা অনেক কমে গেছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) আরিচা কার্যালয় জানায়, বৈরী আবহাওয়ার কারণে আজ সকাল থেকে দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে লঞ্চ ও ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও নদীতে বাতাস থাকায় পদ্মা উত্তাল হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে নদীতে বড় বড় ঢেউ সৃষ্টি হলে দুর্ঘটনা এড়াতে বেলা ১১টা থেকে এই নৌপথে সব ধরনের লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাত আটটা পর্যন্ত নদী শান্ত না হওয়ায় লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। লঞ্চযাত্রীদের ফেরিতে নদী পাড়ি দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তবে এই নৌপথে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকলেও দৌলতিদয়া-আরিচা, আরিচা-কাজির হাট নৌপথে লঞ্চ চলাচল অব্যাহত রয়েছে। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথের লঞ্চ ওই সব পথে নিয়ে এ বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও যাত্রী পারাপার অব্যাহত রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।
দৌলতদিয়া ঘাটে দায়িত্বরত লঞ্চ মালিক সমিতির ঘাট তত্ত্বাবধায়ক নুরুল আনোয়ার বলেন, সকালে নদী শান্ত থাকায় লঞ্চে যাত্রী পারাপার অব্যাহত রাখা হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে বাতাসের কারণে পদ্মা ও যমুনা উত্তাল হয়ে বড় ঢেউ দেখা দেয়। দুর্ঘটনা এড়াতে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বেলা ১১টা থেকে ছোট-বড় সব লঞ্চ বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাতে চালু হওয়ার সম্ভাবনা কম বলেও তিনি জানান। লঞ্চে নদী পাড়ি দিতে আসা যাত্রীদের ফেরিতে নদী পার হওয়ার অনুরোধ জানানো হচ্ছে।
বিআইডব্লিউটিএ আরিচা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (ট্রাফিক) ফরিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, নদী শান্ত না হওয়া পর্যন্ত দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে কোনো লঞ্চ চলাচল করবে না। এ রকম আবহাওয়া থাকলে আজ রোববার সকাল আটটা পর্যন্ত এই নৌপথে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে। আবহাওয়া স্বাভাবিক ও নদী শান্ত হলে রোববার সকাল আটটার পর থেকে লঞ্চ চলাচল করবে। আরিচা-কাজির হাট, দৌলতদিয়া-আরিচা নৌপথে লঞ্চ চলাচল অব্যাহত থাকা প্রসঙ্গে বলেন, ওই সব পথে ঝুঁকি কম থাকায় লঞ্চ চলাচল করছে। তবে ঝুঁকিপূর্ণ হলেই বন্ধ করে দেওয়া হবে।
এদিকে ফেরি-স্বল্পতা ছাড়াও বৈরী আবহাওয়ার কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ উত্তাল থাকায় ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। আগে যেখানে ফেরি পারাপার ৩০ থেকে ৩৫ মিনিট লাগত, বর্তমানে প্রায় এক ঘণ্টার মতো সময় লাগছে। এতে ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ১০ থেকে ১২টি ট্রিপ সংখ্যা কমে এসেছে। এসব কারণে দ্রুত গাড়ি নদী পাড়ি দিতে না পারায় দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া উভয় ঘাটে কয়েক শ গাড়ি আটকা পড়ে লম্বা লাইন তৈরি হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের সহকারী ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি জানান, ছোট-বড় মিলিয়ে ১৬টি ফেরি চললেও মূলত বৈরী আবহাওয়ার কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ট্রিপ সংখ্যা অনেক কমে গেছে। উভয় ঘাটে আটকা পড়ছে গাড়ি। দীর্ঘ সময় ঘাটে আটকে থাকায় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে শত শত মানুষ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..